শনিবার, ২৫শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

চেয়ার কেয়ার করি না, দেশ থেকে বিজেপির বিদায় চাই: মমতা

ভোরের সংলাপ ডট কম :
জুলাই ২১, ২০২৩
news-image

চেয়ারকে কেয়ার করি না, দেশ থেকে বিজেপির বিদায় চাই, আসন্ন ২০২৪-এর লোকসভার নির্বাচনের আগে বছরের সব থেকে বড় সমাবেশ থেকে জাতীয় স্তরের জোট সঙ্গীদের বড় বার্তা দিলেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। শুক্রবার (২১ জুলাই) শহীদ দিবস উপলক্ষে কলকাতার ধর্মতলা চত্বরে ভিক্টোরিয়া হাউস এর সামনে প্রতিবছরের মতোই বৃহৎ সমাবেশের আয়োজন করে মমতার দল তৃণমূল কংগ্রেস। রাজ্যের সদ্য সমাপ্ত পঞ্চায়েত ভোটে বিপুল জয়ের পরে এই সমাবেশ ঘিরে কর্মী সমর্থকদের উচ্ছ্বাস ছিল চোখে পড়ার মত।

শুক্রবারের বৃষ্টিভেজা দুপুরে লাখ লাখ তৃণমূল কর্মী-সমর্থক ও দলীয় নেতাদের সাক্ষী রেখে একুশের মঞ্চ থেকেই চব্বিশে দিল্লিতে পরিবর্তনের জোরালো আওয়াজ তোলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এ সময় তিনি বলেন, আমি খুশি ২০২৪-র লোকসভা নির্বাচনের আগে আমরা ইন্ডিয়া নামে একটি জোট তৈরি করতে পেরেছি। আমরা চেয়ারের কেয়ার করি না। কোনো চেয়ার আমাদের চাই না। আমরা পরিস্কার বলছি, আমরা চাই বিজেপি দেশ থেকে রাজনৈতিকভাবে বিদায় নিক। কারণ বিজেপিকে আর সহ্য করা যাচ্ছে না। সব সীমা লঙ্ঘন করেছে।

তৃণমূল নেত্রী বলেন, আজ ভারতবর্ষে যে লড়াই হোক না কেন, সব ইন্ডিয়ার ব্যানারে হবে। জিতেগা ইন্ডিয়া, এই ব্যানারে হবে। জয় ইন্ডিয়া স্লোগানকে জনপ্রিয় করে তুলতে হবে। এসময় ইন্ডিয়া জোট গঠনের জন্য জোট শরিক ২৬টি দলকে ধন্যবাদ জানান মমতা। বলেন ইন্ডিয়া লড়বে, তৃণমূল কংগ্রেস পাশে ঝান্ডা নিয়ে সৈনিকের মতো দাঁড়িয়ে থাকবে। আমাদের চাওয়ার কিছু নেই। আমাদের একটাই চাওয়া, মোদি হারুক, ইন্ডিয়া জিতুক। আগামী ২৪-এ নতুন ইন্ডিয়ার সৃষ্টি হবে। নতুন ইন্ডিয়ার জন্ম হবে। উন্নয়নের জন্য, মানুষের জন্য, একতার জন্য, সম্প্রীতির জন্য, সংহতির জন্য।

একইসঙ্গে একুশের মঞ্চ থেকে মণিপুরে হিংসা নিয়েও তীব্র আক্রমণে বিঁধলেন কেন্দ্রের বিজেপি সরকারকে। তৃণমূল কংগ্রেস ও ইন্ডিয়া জোটের তরফে মণিপুরের মানুষের পাশে থাকার বার্তা দিয়ে মমতা তোপ দাগেন, বলেন “বেটি বাঁচাও স্লোগান দিয়ে বেটিকে জ্বালানো হচ্ছে। মণিপুর জ্বলছে, সারা দেশ জ্বলছে। মহিলাদের ইজ্জত লুঠ করা হচ্ছে।

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পাশাপাশি মমতার ভাতিজা অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় এদিন একুশের মঞ্চে দাঁড়িয়ে একশো দিনের টাকা আদায়ে ‘দিল্লি চলো’ কর্মসূচির ঘোষণা দেন। তৃণমূলের সর্ব ভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, আগামী ২ অক্টোবর গান্ধী জয়ন্তীতেই বাংলার মানুষকে নিয়ে দিল্লি যাবেন তিনি। জানান কৃষিভবনের বাইরে অবস্থান বিক্ষোভে বসবেন তিনি। একইসঙ্গে আগামী ৫ জুলাই, শনিবার সকাল ১০টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা অবধি কেন্দ্রের বকেয়া ১০০ দিনের টাকার দাবিতে রাজ্যের প্রতিটি ব্লকে এবং পৌরসভায় বিজেপি নেতৃত্বে দের বাড়ির সামনে অবস্থান বিক্ষোভ ও বাড়ি ঘেরাও কর্মসূচির ঘোষণা দেন অভিষেক।

এদিকে তৃণমূলের এদিনের সমাবেশকে ডিম ভাতের উৎসব বলে কটাক্ষ করেন বিজেপি নেতা শুভেন্দু অধিকারী। শুক্রবার দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলার ডায়মন্ড হারবারের একজনসভা থেকে তৃণমূল কংগ্রেসের বিজেপি নেতাদের বাড়ি ঘেরাও কর্মসূচি পাল্টা হিসেবে শুভেন্দু হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন রাজ্যে তৃণমূল নেতারা এমন অসভ্যতা করলে দিল্লিতে সংসদে আপনাদের সাংসদদের ঢুকতে দেব না।

bhorersanglap