মঙ্গলবার, ১০ই সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং

মাদ্রিদে শিশু-কিশোরদের কোরআন প্রতিযোগিতা করেছেন দক্ষিণ সুরমা ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশন।

ভোরের সংলাপ ডট কম :
সেপ্টেম্বর ১০, ২০১৯
news-image

অল ইউরোপিয়ান ব্যুরো চীফঃ স্পেন এর মাদ্রিদ থেকে সহকর্মী ডিবিসি টিভির সংবাদদাতা এবং অল ইউরোপিয়ান বাংলা প্রেস ক্লাবের সাধারন সম্পাদক বকুল খান জানান, প্রবাসে বেড়ে ওঠা শিশু-কিশোরদের ইসলামী আলোকে চরিত্র গঠন ও মানসিক বিকাশ এ লক্ষ্যে হয়ে গেল কুরআন প্রতিযোগিতা।প্রবাসীর রুটিনমাফিক চলা জীবন থেকে, সামার ভ্যাকেশনে দীর্ঘ ছুটি কে কাজে লাগিয়ে ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনা নিয়ে হয়ে গেল শিশু কিশোরদের কন্ঠে সুমধুর কোরআন তেলাওয়াত প্রতিযোগিতা। প্রবাসীদের গতানুগতিক কার্যক্রম কে উপেক্ষা করে, স্পেনের মাদ্রিদে নবগঠিত সিলেট দক্ষিণ সুরমা এসোসিয়েশন এই মহতি অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। গত রোববার মাদ্রিদের বাংলাদেশ এসোসিয়েশন স্পেনের হলরুমে ৩ সপ্তাহব্যাপী এ প্রতিযোগিতা সমাপ্তি ঘটে।

সংগঠনের সভাপতি সেলিম আলমের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক সাইফুর রহমান লিটনের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ দূতাবাসের ফাস্ট সেক্রেটারি শরিফুল ইসলাম। সংগঠনের সাংগঠনিক সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার শাহাদত সুমেল, শিল্পী সোহেল, রফিক রহমান, হাফিজ মিয়া, সিরাজুল ইসলাম, নজরুল খান সহ কমিটির সকল নেতৃবৃন্দের সার্বিক তত্ত্বাবধানে ছিলেন। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ মসজিদ কমিটির সভাপতি খোরশেদ আলম মজুমদার, বাংলাদেশ এসোসিয়েশন এর ভারপ্রাপ্ত সভাপতি জহিরুল ইসলাম নয়ন, সাধারণ সম্পাদক কামরুজ্জামান সুন্দর, গ্রেটার সিলেট এসোসিয়েশনের আহ্বায়ক ফয়জুর রহমান, গ্রেটার ঢাকা এসোসিয়েশনের সভাপতি সোহেল ভূঁইয়া, দক্ষিণ সুরমা অ্যাসোসিয়েশনের প্রধান উপদেষ্টা মাওলানা আসাদুজ্জামান রাজ্জাক, কমিউনিটি ব্যক্তিত্ব ডাক্তার দুলাল, বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের সভাপতি এ কে এম জহিরুল ইসলাম, ব্যবসায়ী কল্যাণ সমিতির সভাপতি আবুল হোসেন ,নুরুল আলম, মাওলানা খলিলুর রহমান, মাওলানা আবুল কালাম শিবলু, কমিউনিটি ব্যক্তিত্ব সুহেল আহমদ সামসু, ভালিয়েন্তে বাংলার সভাপতি ফজলে এলাহী, গ্রেটার সিলেট এর সাবেক সভাপতি লুৎফুর রহমান, সাবেক সাধারন সম্পাদক ইসলাম উদ্দিন পংকি, নোয়াখালী সমিতির সাধারণ সম্পাদক আবু সায়েম মজুমদার, মাওলানা গৌস উদ্দিন ,আবুল হাশেম মেম্বার, আসাদুজ্জামান সাদ ,আব্দুল হামিদ সঞ্জু , আফসার হোসেন নিলু, এমদাদ হোসেন সহ বাংলাদেশ কমিউনিটির নেতৃবৃন্দ সহ বিভিন্ন আঞ্চলিক ও সামাজিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে বলেন ইউরোপের একটি অনৈসলামিক পরিবেশে এরকম একটা আয়োজন সত্যিই প্রশংসনীয়। স্পেনে বেড়ে ওঠা ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে ধর্মীয় শিক্ষায় শিক্ষিত করতে অবশ্যই পিতা-মাতার পাশাপাশি কমিউনিটি নেতৃবৃন্দ কে প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষার ব্যবস্থা করতে হবে। সভাপতির বক্তব্যে সেলিম আলম বলেন তাদের এ প্রচেষ্টা ছিল শিশু কিশোরদের ইসলামী শিক্ষার প্রতি আগ্রহ বাড়ানোর প্রয়াস মাত্র ।সভাপতি সেলিম আলাম আক্ষেপের সুরে বলেন, কমিটির কর্তাব্যক্তিরা অনেকেই বিভিন্ন সভা-সমিতিতে ,নতুন প্রজন্মকে ইসলামী শিক্ষার গুরুত্ব দিয়ে আঞ্চলিক সংগঠনগুলোকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানালেও তারা শুধু বক্তৃতার মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকেন।আমাদের এই আঞ্চলিক সংগঠন ক্ষুদ্র পরিসরে চেষ্টা করে ,অভিভাবক ও শিশু-কিশোরদের মাঝে যে সাড়া পেয়েছে তা আসলেই অভূতপূর্ব |কিন্তু কমিউনিটি নেতৃবৃন্দের নিরব ভূমিকায়ই আমাদেরকে হতাশাই করেছে।উল্লেখ্য গত  ২৫ আগস্ট এই অনুষ্ঠানের ক এবং খ গ্রুপের এবং পহেলা সেপ্টেম্বর গ গ্রুপের প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। যেখানে স্পেনে বেড়ে ওঠা ভবিষ্যৎ প্রজন্মের প্রায় শতাধিক প্রতিযোগী অংশগ্রহণ করে। কেরাত প্রতিযোগিতায় ক গ্রুপে মাহফুজা সারা আলাম।খ গ্রুপে যৌথভাবে মাইমুনা রহমান বেগম ও আবু নোমান মজুমদার  এবং গ গ্রুপে সাদিক জাহান গৌছ প্রথম স্থান অধিকার করে। অন্যদিকে নাশিদ প্রতিযোগিতায় ক গ্রুপে আইমান আলম খ গ্রুপে আবু নোমান মজুমদার এবং গ গ্রুপে তালহা দাইয়ান চৌধুরি প্রথম স্থান অধিকার করেছে  এরকম প্রতিযোগিতার ধারাবাহিকতা অব্যাহত থাকবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন অনুষ্ঠানে আগত কমিউনিটি নেতৃবৃন্দ।সাধারণ সম্পাদক সাইফুর রহমান কমিউনিটির কমিটি শীর্ষ নেতাদের প্রতি আহবান জানিয়ে বলেন , বাহবা কুড়ানোর উদ্দেশ্যে নয়, ইসলামিক শিক্ষা তাদের মনের মধ্যে বীজ বপনই আমাদের লক্ষ্য।আসুন সবাই মিলে বৃহৎ পরিবেশে এরকম প্রতিযোগিতার আয়োজন করি।

 

আরও পড়তে পারেন