রবিবার, ১লা সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং

ঈদে এলোচুলে দিতে পারেন জমকালো সাজ

ভোরের সংলাপ ডট কম :
জুন ২৪, ২০১৭
news-image

ইদানিং দেখা যাচ্ছে সাজ পোশাক ঠিক আছে, কিন্তু চুলগুলো কেমন যেনো এলোমেলো। এখন দেখা যাচ্ছে এলোমেলোতেই সৌন্দর্য, এই ধারনা বেশ আনুষ্ঠানিক ভাবেই রূপসজ্জার দুনিয়ায় জায়গা করে নিয়েছে। অযত্নে নয়, উদাসভাব থেকেও নয় বরং অনেক বেশি যত্ন নিয়ে নিজেকে এলোমেলো ভাবে সাজানোর মজার সময় এখন।

এলোমেলো এই সাজের ধারা চুলের ক্ষেত্রেই মূলত অনুসরণ করা হয়। মেসি হেয়ার স্টাইলে প্রায়দিনই স্বস্তি খোঁজা সম্ভব। খোলা চুল থেকে নিয়ে খোঁপা অবধি সবকিছুই এই এলোমেলোর মোহে আটকে গেছে তাই। খুব বেশি পরিপাটি হবার রোগ না থাকলে যেকোনো দিনই মেসি হেয়ার স্টাইলের জন্য উপযোগী দিন হতে পারে।


তাই এবার ঈদে দিতে পারেন এলোচুলে জমকালো সাজ।
মজাদার এই কেশবিন্যাসে সাধারণত চিরুনীর ব্যবহার নিষেধ। দুনিয়া ভরা সরঞ্জাম ব্যবহার করা চলবে তবু চিরুনী নয়। কারণ চিরুনী তো চুলকে সেই পরিপাটি করে দেবেই, তবে এলোমেলো হবেটা কী করে?

চুল ধুয়ে শুকনো করে মুছে নিয়ে আঙ্গুল চালিয়ে জট ভেঙ্গে নিতে হবে। আবারো মনে করে নেওয়া যাক, চিরুনীর দিকে নজর দেওয়া চলবে না! তারপর ইচ্ছা বা প্রয়োজন অনুযায়ী হেয়ার জেল, সিরাম বা শুকোনোর জন্য ড্রায়ার ব্যবহার করা যেতে পারে।
ভেজা চুলের সাজ চাইলে আধা শুকনো করেই রেখে দিতে হবে। আর নাহয় ড্রায়ার বা ফ্যানের বাতাসেই শুকোতে দিতে হবে পুরোপুরি।
এই শুকনো চুলে এবার চাইলেই বেণী বা খোঁপা হয়ে যেতে পারে। বা খোলা চুলগুলোই ছড়িয়ে থাকুক আরো এলোমেলো হয়ে। অনুষঙ্গের ব্যবহারও চলবে ইচ্ছে মতো।

কারণ সাধারণ কোনো উপলক্ষ হোক বা জমকালো অনুষ্ঠান, সব জায়গাতেই এলোমেলো কেশবিন্যাসের গ্রহণযোগ্যতা রয়েছে। কাজেই এবার বেণীতে মিষ্টি দেখতে ফুলের ব্যান্ড পরা বা খোঁপায় ঝলমলে মুক্তোর কাঁটা, বেমানান হবে না কিছুই।
তথ্য ও ছবি : ইন্টারনেট