রবিবার, ১লা সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং

মাকে নিবেদিত চার কবির কবিতা

ভোরের সংলাপ ডট কম :
মে ২২, ২০১৭
news-image

মাগো
মিজানুর রহমান বেলাল

মাগো— বুকের বরফ গলে গলে চোখের উঠোনে নদী হেঁটে যায়;
শূন্যতার ঢেউ গোপনে গোপনে বড় হয় ঢের— বুকের মধ্যমায়।

মাগো— দীর্ঘমেয়াদি আগুনমুখা হাহাকারের ছায়া পালাতে দেয়নি

দোঁ-আশ মাটির মমতা দিয়েই তো তোমার পাঁজর বাঁধানো
থোকাথোকা স্মৃতিস্বচ্ছলতার আশ্রয়ছায়াতল থেকে বিনম্র প্রণাম।

কীভাবে প্রসারিত করবো জীবনের বাঁধনে বাঁধা বসন্ত সকাল?
শোকের বিদীর্ণ পথ মাড়িয়ে সুখের বিনিময়ে বেদনার সম্ভাষণ।
নোনা জলভরা ঘোলাচোখে দেয়ালে ঝুলানো ঝুলন্ত ছবি দেখি—
নেতিয়ে পড়া প্রহরে প্রহরে; তুমি কী সত্যি নিরব নিরুদ্দেশে
তুমি কী সত্যিই চলে গেছো চাঁদের বাড়ি,
কতরাত নির্ঘুম: বালিশ ভিজে যায়…

মাগো— হাত উঠিয়ে রোজরাতে তারাকে বলি; মাকে দেখে রেখো।
তবু ঈশ্বরের দাওয়ায় খাওয়ানার অজুহাতে বাবার ঘুম ভেঙ্গো না,
সবুজ ধানপাতা এখনো অবুঝ— ছলনার বাতাসকোলে হেলে পড়ে।

কাকের হৈচৈ ভিড়ে নয়— পারলে দেখে যেও; লাল নীল প্রজাপতির বিয়ে।

****

মা
জব্বার আল নাঈম

মেঘ থেকে ছিটকে পড়া বৃষ্টির হাহুতাশ নেই
কোনকালের পাঠ্যবইয়ে
ক্লান্ত সময় হারিয়ে যায় পাহাড়ি ধূলায়

এক চিলেকোঠা সন্ধ্যায়-সাগরের পেট থেকে,
অস্থিমজ্জা আর রক্তপানি নিয়ে উঠে এসে
মাসিদের মজলিশে ভীষণ ভাবছি।

রাতের শিথানে চেরাগ নিভিয়ে দিয়ে দরদী গলাটি
অন্ধঘরে আলোর স্নেহ ঢেলে বাড়তে দেয় মাল্টিবাগান
সমুদ্রের দুই তীর ক্রমান্বয়ে ফুলে ওঠা বোধের উঠোন

মোম
হৃদয়ের গহীনে লুকানো সুতা জ্বালিয়ে-আলো দেয়

****

মিষ্টি মায়ের দৃষ্টি
মিজানুর রহমান মিথুন

কাক ডাকা ভোর
কিংবা দুপুর
সাজ কিংবা রাতের মাঝে
যতই থাকুক কাজের তাড়া
তবু তিনি দেন সাড়া
তিনি আমার মিষ্টি মা-যে।

মিষ্টি মায়ের দৃষ্টি থাকে আমার পানে
আমার জীবন আলোয় ভরা তারই দানে।
মায়ের মনে মিষ্টি যত ভালোবাসা,
তার জীবনে আছে যত কান্না-হাসা,
সবকিছুই আমায় নিয়ে, আমার টানে।

****

তোমার জন্য প্রতিটি দিন মা
সাইদুল ইসলাম

তোমার জন্য আমার প্রতিটি দিন সমান,
তুমি আমার পৃথিবীর সেরা মায়ের গল্প।
ম্যাক্সিম গোর্কির মায়ের চেয়েও,
আমি লিওনার্দকে নিয়ে আসবো
সেই গল্পের প্রচ্ছদ অঙ্কনের জন্য।
হোমারকে নিয়ে আসবো সেই গল্পের ভূমিকা লিখতে।

পৃথিবীর কোনো নোবেল সম্মানী দিয়ে,
তোমার ঋণকে ছোট করতে পারবো না।
কোনো দিবসে সে ঋণ বাঁধতে পারবো না,
কক্ষনো এই ঋণ শোধের স্পর্ধা দেখাই না।

পৃথিবীতে প্রতিটি মা এক একটি স্বর্গ
তাই প্রতিটি দিন প্রতিটি সন্তানের জন্য মা দিবস।